সম্পাদক পদে ডিপজলের দায়িত্ব পালন ঠেকালেন নিপুণ

সম্পাদক পদে ডিপজলের দায়িত্ব পালন ঠেকালেন নিপুণ

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৬ মেয়াদের নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে ডিপজলকে বিজয়ী ঘোষণার ফল স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। সেই সঙ্গে অনিয়মের ঘটনা তদন্তের পাশাপাশি রুল জারি করেছেন আদালত।

এক রিটের শুনানি শেষে সোমবার বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি কাজী জিনাত হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এই আদেশ দেন। আদালতে নিপুণের পক্ষে শুনানি করেন জৈষ্ঠ আইনজীবী শাহ মনজুরুল হক।

১৯ এপ্রিল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪–২৬ মেয়াদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে নিপুণ ও মাহমুদ কলি প্যানেলের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে মিশা-ডিপজল প্যানেল। ভোটগ্রহণ শেষে ২০ এপ্রিল সকালে ফল ঘোষণা করা হয়।

ঘোষিত ফলে সভাপতি পদে মিশা সওদাগর ২৬৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। আর ১৭০ ভোট পান তার প্রতিদ্বন্দ্বী সভাপতি প্রার্থী মাহমুদ কলি। অন্যদিকে মাত্র ১৬ ভোটের ব্যবধানে সাধারণ সম্পাদক পদে মনোয়ার হোসেন ডিপজলের কাছে পরাজিত হয়েছিলেন নিপুণ আক্তার। যেখানে ডিপজল পান ২২৫ ভোট, আর নিপুণ আক্তার পান ২০৯ ভোট।

ভোটের ফল ঘোষণার পর নিপুণ ডিপজল ও মিশাকে ফুলের মালা পরিয়ে দেন। পরে নিপুণ এ বিষয়ে রিট করেন।

১৬ মে দায়ের করা রিটে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৬ মেয়াদি নির্বাচন বাতিল চাওয়া হয়। রিটে মিশা-ডিপজলের নেতৃত্বাধীন কমিটির দায়িত্ব পালনে নিষেধাজ্ঞা চাওয়া হয়েছে। নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ এনে এ ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠনের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছিল রিটে। পাশাপাশি নতুন করে নির্বাচনের তফশিল ঘোষণার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছিল। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৬ মেয়াদি নির্বাচনে জয়ী হয়েছে মিশা-ডিপজল প্যানেল। গত ২০ এপ্রিল শিল্পী সমিতির নির্বাচনের ফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার খোরশেদ আলম খসরু।