বাংলাদেশে শেখ হাসিনা সবাইকে জেলে রেখে নির্বাচনে জিতেছেন: কেজরিওয়াল

বাংলাদেশে শেখ হাসিনা সবাইকে জেলে রেখে নির্বাচনে জিতেছেন: কেজরিওয়াল

বাংলাদেশে শেখ হাসিনা সবাইকে কারাগারে রেখে বিপুল ব্যবধানে জিতেছেন বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী ও আম আদমি পার্টির (আপ) নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়াল। 

শুক্রবার দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে এই মন্তব্য করেন তিনি।

নরেন্দ্র মোদির তৃতীয় মেয়াদ কেমন হতে পারে এই প্রশ্নের জবাবে কেজরিওয়াল বলেন,  তারা সংবিধান পরিবর্তন করবে এবং দেশ স্বৈরাচারের দিকে যাবে। হয় দেশে কোনো নির্বাচন হবে না, নয়তো রাশিয়ার মতো নির্বাচন হবে, যেখানে পুতিন হয় সব বিরোধীকে কারাগারে পুরে রেখেছেন বা তাদের হত্যা করেছেন। এরপর নির্বাচন হয় এবং তিনি ৮৭ শতাংশ ভোট পান।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে শেখ হাসিনা সবাইকে কারাগারে রেখে বিপুল ব্যবধানে জিতেছেন। পাকিস্তানে তারা (সেনাবাহিনীর দিকে ইঙ্গিত করে) ইমরান খানকে কারাগারে পুরেছে। তার দল, দলীয় প্রতীক কেড়ে নেওয়া হয়েছে। তারপর তারা জয়ী হয়েছে।

আমাদের দেশেও এ ধরনের নির্বাচন হবে। বিরোধীরা কারাগারে থাকবে আর তারা (ক্ষমতাসীন) ভোট পেতে থাকবে। এবারও তারা আমাকে কারাগারে ঢোকাল। মনীশ সিসোদিয়াকে কারাগারে রেখেছে। আমাদের দলের পাঁচ শীর্ষ নেতাকে কারাগারে দিল।

তারা আমাদের ব্যাংক হিসাব অবরুদ্ধ (ফ্রিজ) করতে চলেছে। তারা কংগ্রেসের ব্যাংক হিসাব অবরুদ্ধ করেছে। হেমন্ত সোরেনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তারা এনসিপিকে দুই ভাগে ভাগ করেছে। তাদের প্রতীক কেড়ে নিয়েছে। তারা শিবসেনাকে বিভক্ত করেছে। তাদের প্রতীক কেড়ে নিয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের অনেক মন্ত্রীকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। স্ট্যালিন সরকারের মন্ত্রীদের সঙ্গেও একই কাজ হয়েছে। আমরা কীভাবে লড়াই করছি, তা আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না।

কেজরিওয়াল বলেন, দেশ খুব কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। ধীরে, এবং এখন খুব দ্রুত, দেশ একনায়কতন্ত্রের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। তারা (কেন্দ্রের বিজেপি সরকার) প্রথমে (ঝাড়খন্ডের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী) হেমন্ত সোরেনকে ও পরে আমাকে গ্রেপ্তার করেছে।

আপনি কী কারণে এমন বলছেন যে বিজেপি আপকে, বিশেষ করে আপনাকে নিশানা করছে, এমন প্রশ্নের জবাবে কেজরিওয়াল বলেন, আম আদমি পার্টির অভূতপূর্ব উত্থান। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যাদের দেখাসাক্ষাৎ আছে, তাদের মধ্যে কেউ কেউ আমাদের বন্ধুও—তারা আমাদের বলেন যে প্রধানমন্ত্রী ঘন ঘন আপ নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি বলছেন, ভবিষ্যতে আপ তাদের জাতীয়ভাবে এবং অনেক রাজ্যে চ্যালেঞ্জ করবে। তারা এটিকে কুঁড়িতে বিনষ্ট করে দিতে চায়। বড় হয়ে ওঠার আগেই তারা আপকে শেষ করে দিতে চায়।