কানাডায় ইসলামবিদ্বেষ : এক পরিবারের ৪ সদস্যকে হত্যা

কানাডায় ইসলামবিদ্বেষ : এক পরিবারের ৪ সদস্যকে হত্যা

কানাডায় একটি পরিবার ইসলামবিদ্বেষের শিকার হয়েছে। এক গাড়িচালক পরিকল্পিতভাবে ওই পরিবারের চার সদস্যকে নৃশংসভাবে হত্যা করেছে, অপর একজনকে মারাত্মকভাবে আহত করেছে। রোববার সন্ধ্যায় টরোন্টো থেকে ১২৪ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমের শহর লন্ডনে রাস্তা পারাপারের জন্য অপেক্ষা করার সময় তারা এই হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়। হামলাকারী চালক তার গাড়িটি অপেক্ষমাণ পরিবারটির ওপর ওঠিয়ে দেয়। কানাডার সংবাদপত্রগুলো সোমবার এ খবর প্রকাশ করেছে।

পুলিশ জানায়, নিহতদের মধ্যে রয়েছেন ৭৭ ও ৪৪ বছর বয়স্কা দুই নারী, ৪৬ বছর বয়স্ক এক পুরুষ ও ১৫ বছর বয়স্কা এক কিশোরী। এছাড়া ৯ বছর বয়সী এক বালক মারাত্মকভাবে আহত হয়েছে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষ তাদের পরিচয় প্রকাশ করেনি।

লন্ডন পুলিশ সার্ভিসের সুপারিন্ডেন্ট পল ওয়েট এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, এটি যে বিদ্বেষপ্রসূত পরিকল্পিত, পূর্বনির্ধঅরিত ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হত্যাকাণ্ড, তার প্রমাণ রয়েছে।

কানাডার বিভিন্ন প্রদেশে ইসলামফোবিয়া বাড়ার খবরের প্রেক্ষাপটে এই দুর্ঘটনা ঘটল। উগ্র ডানপন্থীরা মুসলিমবিদ্বেষ ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডর বলেছেন, তিনি এই ঘটনাকে 'বিদ্বেষমূলক' কাজ হিসেবে অভিহিত করে বলেছেন, তিনি এতে আতঙ্কিত।

তিনি এক টুইটে বলেন, লন্ডন ও কানাডার মুসলিমদের প্রতি আমি বলছি, আমরা আপনাদের সাথে আছি। এই দেশে ইসলামফোবিয়ার কোনো স্থান নেই।

হত্যাকারীর নাম নাথানিয়েল ভেল্টম্যান। তার বয়স ২০ বছর। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।সূত্র : আল জাজিরা ও মিডলইস্ট নেট