সন্ধ্যা থেকে রাতের মধ্যে ১৬০টিরও বেশি ভূমিকম্প, স্কুল বন্ধ ঘোষণা

সন্ধ্যা থেকে রাতের মধ্যে ১৬০টিরও বেশি ভূমিকম্প, স্কুল বন্ধ ঘোষণা

দক্ষিণ ইতালির নেপলসের আশেপাশের এলাকায় ভূমিকম্পের পর বাড়িঘর খালি করা হয়েছে এবং অনেক স্কুল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (২১ মে) সন্ধ্যায় থেকে রাতের মধ্যে ১৬০ টিরও বেশি ভূমিকম্প রেকর্ড করা হয়েছে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় এই শহরে।

বিবিসির এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, এর মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্পটি ছিল ৪.৪ মাত্রার। দেশটির পোজুলি শহরের কাছে স্থানীয় সময় রাত আটটার দিকে এই ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। ইতালির ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব জিওফিজিক্স অ্যান্ড ভলকানোলজি (আইএনজিভি) বলেছে, গত ৪০ বছরের মধ্যে এটিই ছিল এই অঞ্চলের সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প।

নেপলসের মেয়র গাইতানো মানফ্রেদি স্বীকার করেছেন, একের পর এক কম্পনে বাসিন্দারা আতঙ্কিত হতে পারেন। তবে তিনি বলেছেন, কর্মকর্তারা তাদের বিষয়ে দেখছেন। তিনি সবাইকে সতর্ক করে বলেন, ভবিষ্যতে আরও গুরুতর ভূমিকম্প হতে পারে’। কর্মকর্তাদের এই জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে।

ভূমিকম্পের পর পোজুলিতে শতাধিক তাঁবু তৈরি করা হয় এবং কিছু বাসিন্দা রাতের বেশিরভাগ সময়ই রাস্তায় কাটিয়েছেন। আবার কিছু বাসিন্দা তাদের আত্মীয়দের সঙ্গে থাকতে অন্যত্র চলে যান বলা জানা যায়।

স্থানীয় মিডিয়া জানিয়েছে, গত কয়েক মাসে যে নিম্ন-স্তরের ভূমিকম্প হয়েছে তার কারণে বেশ কয়েকটি পরিবার পুরোপুরি এলাকা ছেড়ে যাওয়ার কথা ভাবছে। স্থানীয় একটি আউটলেট নেপলসের একজন বাসিন্দাকে উদ্ধৃত করে বলেছে, তারা কখনও এত শক্তিশালী ভূমিকম্প অনুভব করেনি।

যদিও অবকাঠামোর কোনও উল্লেখযোগ্য ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি, তবে নেপলসের কিছু স্কুল মঙ্গলবার পরিদর্শনের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং পোজুলিতে মহিলাদের কারাগার সতর্কতা হিসাবে খালি করে দেওয়া হয়।