রুশ ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ইউক্রেনে নিহত ৫

রুশ ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ইউক্রেনে নিহত ৫

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় শহর পোকরভস্কে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। এতে কমপক্ষে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। এছাড়া ওই ঘটনায় ৪ শিশুসহ আহত মোট ৪১ জন আহত হয়েছেন বলে খবর দিয়েছে অনলাইন আল জাজিরা। মঙ্গলবার গণমাধ্যমটি জানিয়েছে রাশিয়ার ওই হামলাকে বেসামরিকদের ওপর সবচেয়ে বড় হামলা আখ্যা দিয়েছে ইউক্রেনের আঞ্চলিক গভর্নর ভাদিম ফিলাশকিন। এক টেলিগ্রাম বার্তায় আঞ্চলিক গভর্নর বলেছেন, এটি সম্প্রতি বেসামরিক নাগরিকদের ওপর রাশিয়ার সবচেয়ে বড় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা। এই হামলায় যথাক্রমে ৯, ১১, ১৩ বছর বয়সী তিন মেয়ে শিশু এবং ১২ বছর বয়সী এক ছেলে শিশু গুরুতর আহত হয়েছেন বলে তথ্য দিয়েছেন ওই গভর্নর।

এই হামলার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। রাশিয়াকে হুঁশিয়ারি দিয়ে তার রাত্রিকালীন টেলিভিশন বক্তৃতায় জেলেনস্কি বলেছেন, ইউক্রেন অবশ্যই ‘ন্যায্যভাবে’ এই হামলার জবাব দেবে।

আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, হামলার একজন প্রত্যক্ষ্যদর্শী পেট্রো। রাশিয়ার এই ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় তিনি তার সন্তান এবং নাতিকে হারিয়েছেন। তিনি গাড়ি চালানো অবস্থায় এই হামলার শিকার হন। গাড়িতে তার ছেলে অবস্থান করছিলেন।

পরে হামলা হলে পেট্রোর ছেলে নিহত হন এবং ওই গাড়িতে থাকা তার নাতি গুরুতর আহত হন। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রক্তমাখা গাড়ির আসন দেখিয়ে কাঁদতে কাঁদতে নিজের ছেলে এবং নাতি হারানোর বর্ণনা দিয়েছেন পেট্রো। রাশিয়ার এই হামলায় আরও ছয়টি গাড়ি এবং কমপক্ষে ১৬টি বসতবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন গভর্নর ভাদিম ফিলাশকিন।

টেলিগ্রামের বার্তায় ওই গভর্নর বলেছেন, রাশিয়ার সেনারা পোকরভস্ক শহরে দুটি ইস্কান্দার-এম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে। হামলায় আক্রান্ত স্থানটি মূল যুদ্ধক্ষেত্র থেকে অন্তত ২৪ কিলোমিটার ভিতরে, যেখানে বেসামরিকদের বসবাস রয়েছে। ইউক্রেনের প্রসিকিউটর জেনারেলের কার্যালয় জানিয়েছে রাশিয়া মাত্র আধা ঘণ্টার ব্যবধানে এই হামলা চালায়।