মঞ্চে শীর্ষ নেতারা, বিএনপির সমাবেশে জনসমুদ্র

মঞ্চে শীর্ষ নেতারা, বিএনপির সমাবেশে জনসমুদ্র

কারান্তরীণ দলের চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ময়মনসিংহে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে সমাবেশ মঞ্চে উপস্থিত হয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা। আছেন মহানগর নেতৃবৃন্দও।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় নগরীর রেলওয়ে কৃষ্ণচূড়া চত্বরে পবিত্র কোরআন তিলাওয়াতের মধ্য দিয়ে সমাবেশ শুরু হয়।

মহানগর সমাবেশকে ঘিরে সকাল থেকেই দলে দলে নেতা-কর্মীরা মহমনসিংহ অভিমুখে আসতে থাকে। দুপুরের আগেই খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে শ্লোগানের শহরে পরিণত হয় গোটা নগরী। বেলা ২টার আগেই সমাবেশস্থলে নেতা-কর্মীদের ঢল নামে। এ মুহূর্তে কানায় কানায় পূর্ণ কৃষ্ণচূড়া চত্বর।

ময়মনসিংহ জেলা দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবু ওয়াহাব আকন্দের সঞ্চালনায় সমাবেশের শুরুতে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মোনাজাত পরিচালনা করেন ওলামাদলের জেলা সভাপতি। এখন নগর বিএনপির নেতারা এক এক করে বক্তব্য রাখছেন।

এর পরই বক্তব্য দেবেন দলের কেন্দ্রীয় নেতারা। ময়মনসিংহ জেলা দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি একে এম শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এদিকে সমাবেশে যোগ দিতে বিভাগের ৪ জেলা ও বিভিন্ন উপজেলা থেকে নেতা-কর্মীরা মিছিল নিয়ে সমাবেশ স্থলে আসছেন। এ কারণে লোকে লোকারণ্য হয়ে গেছে রেলওয়ে চত্বর।

মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইলসাম আলমগীর ছাড়াও কৃষ্ণচূড়া চত্বরের সমাবেশে কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে উপস্থিত আছেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু।

এদিকে সমাবেশে যোগ দিতে বিভাগের ৪ জেলা ও বিভিন্ন উপজেলা থেকে নেতা-কর্মীরা এখনও মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে আসছেন।

উল্লেখ্য, নানা নাটকীয়তার পর বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে সমাবেশ আয়োজনের অনুমতি পায় বিএনপি। এর আগে রাতে সভার মঞ্চ প্রস্তুত করা বন্ধ করে দেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পরে অনুমতি পাওয়ায় সকালে ফের মঞ্চ নির্মাণ করা হয়।

এমআই