বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরীর জামিন স্থগিতই থাকছে

বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরীর জামিন স্থগিতই থাকছে

নাশকতা ও গাড়ি পোড়ানোর অভিযোগে রাজধানীর দুই থানার দুই মামলায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন স্থগিতই থাকছে।

ওই দুই মামলায় আসলাম চৌধুরীকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন ৬ জুন আপিল বিভাগ স্থগিত করেন। তার জামিন ২০ জুন পর্যন্ত স্থগিত করে রাষ্ট্রপক্ষকে নিয়মিত লিভ টু আপিল দায়ের করতে বলা হয়। একইসঙ্গে ২০ জুন শুনানির তারিখ রাখেন আপিল বিভাগ। তার ধারাবাহিকতায় রাষ্ট্রপক্ষের করা পৃথক লিভ টু আপিল আজ আপিল বিভাগে শুনানির জন্য ওঠে।

শুনানি নিয়ে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন ভার্চ্যুয়াল আপিল বিভাগ রাষ্ট্রপক্ষের করা লিভ টু আপিল নিষ্পত্তি করে আদেশ দেন। আদেশে আদালত বলেছেন, (জামিনে) স্থগিতাদেশ চলমান থাকবে।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন। আসলাম চৌধুরীর পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।

আসলাম চৌধুরীর আইনজীবীরা জানান, অন্য মামলায় ২০১৬ সাল থেকে আসলাম চৌধুরী কারাগারে আছেন। নাশকতার অভিযোগে ২০১৩ সালে করা ওই দুই মামলায় চলতি বছরের জানুয়ারিতে আসলাম চৌধুরীকে গ্রেফতার দেখানো হয়।

ওই দুই মামলায় ৩০ মে হাইকোর্ট আসলাম চৌধুরীকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন। তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ পৃথক আবেদন করে, যা চেম্বার আদালত হয়ে ৬ জুন আপিল বিভাগে ওঠে।

২০১৬ সালের ১৫ মে রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকা থেকে আসলাম চৌধুরীকে গ্রেফতার করা হয়। পরদিন ফৌজদারি কার্যবিধির (সন্দেহজনক) ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে রিমান্ডে নেওয়া হয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পাওয়ার পর একই বছরের ২৬ মে আসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে গুলশান থানায় রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা হয়। মামলায় আসলামের বিরুদ্ধে ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের এজেন্টের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ‘বাংলাদেশের সরকার উৎখাত ষড়যন্ত্রের অভিযোগ’ আনা হয়। এ মামলায় উচ্চ আদালত থেকে তিনি জামিন পেয়েছেন।

এমজে/