কর্মসূচি দেয়ার চিন্তা করছে বিএনপি ও সমমনারা

কর্মসূচি দেয়ার চিন্তা করছে বিএনপি ও সমমনারা

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, গ্যাস, বিদ্যুৎ, সীমান্ত হত্যা নিয়ে বিএনপি এবং যুগপৎ আন্দোলনের জোট ও দলগুলো কর্মসূচি দেয়ার চিন্তা করছে বলে জানিয়েছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

সোমবার রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে জাতীয়তাবাদী সমমনা জোটের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক কথা জানান তিনি। এরপরে লেবার পার্টির সঙ্গে বৈঠক করেন বিএনপির লিয়াজোঁ কমিটি। বৈঠকে নজরুল ইসলাম খান ছাড়াও বিএনপির স্থায়ী কমিটির বেগম সেলিমা রহমান এবং ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহাজাহান উপস্থিত ছিলেন।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, রাষ্ট্রীয় সমস্যা এবং জনগণের বিভিন্ন সংকটের সম্পর্কে আমরা আলোচনা করেছি। এরমধ্যে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে জনজীবন বিপর্যস্ত, বিদ্যুৎ, পানি ও যোগাযোগ সংকটের বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা করা হয়েছে। একইভাবে আমাদের দেশে যে অর্থনৈতিক সংকট, টাকার অবমূল্যায়ন এবং ব্যাংকসহ বিভিন্ন অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠান লুট এবং রাষ্ট্রীয় ঋণরে দ্রুত বৃদ্ধির প্রসঙ্গও বৈঠকে আলোচনায় এসেছে।

তিনি বলেন, সীমান্তে মানুষ হত্যা এবং মিয়ানমার সীমান্তে যে নতুন ঘটনা ঘটেছে, এসব বিষয়ে আমরা আলোচনা করেছি। বিষয়গুলো নিয়ে আমরা একমত হয়েছি যে, জনগণকে সম্পৃক্ত করে আগামীদিনে আমরা কিভাবে অগ্রসর হতে পারি। আর আমরা কর্মসূচি গ্রহণ করার চিন্তা করছি। আমাদের জোটগুলো তারা নিজেরা বসবেন এবং আলোচনা করবেন। এরপরে তারা আবারও আমাদের সঙ্গে বসবেন। আরো অন্যান্য জোট ও দলগুলোর সঙ্গে আমরা আলোচনা করছি।

সেই আলোচনা প্রেক্ষিতে আমরা আগামীদিনে আপনাদের (সাংবাদিক) কর্মসূচির বিষয়ে জানাবো। কিন্তু সমস্ত বিষয়ে আমরা একমত হয়েছি যে, দেশে এবং দেশের মানুষ আজ আরও বেশি সংকট ও সমস্যার মুখোমুখি। তারা এ অবস্থা থেকে মুক্তি চায়। 

বৈঠকে জাতীয়তাবাদী সমমনা জোটের নেতৃবৃন্দের মধ্যে এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, জাগপার সভাপতি খন্দকার লুৎফর রহমান, বিকল্পধারা বাংলাদেশের মহাসচিব শাহ আহমেদ বাদল, গণদলের চেয়ারম্যান এটিএম গোলাম মাওলা চৌধুরী, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির চেয়ারম্যান ক্বারী মো. আবু তাহের, বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান এম এন শাওন সাদেকী, বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক কমরেড ডা. সৈয়দ নুরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরানের নেতৃত্বে ১০ সদস্যে প্রতিনিধি দল বৈঠক অংশ নেন। এরমধ্যে দলটির ভাইস চেয়ারম্যান এস এম ইউসুফ আলী, এডভোকেট আমিনুল ইসলাম রাজু, হিন্দুরত্ম রামকৃষ্ণ সাহা, এডভোকেট জহুরা খাতুন জুঁই, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব খন্দকার মিরাজুল ইসলাম, যুগ্ম মহাসচিব মুফতি তরিকুল ইসলাম সাদী, হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, প্রচার সম্পাদক মনির হোসেন খান, নির্বাহী পরিষদ সদস্য মো. জনি আহমেদ এবং মো. মাসুম চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।