বাংলাদেশ ও মিয়ানমার ভেঙে খ্রিষ্টান দেশ বানানোর চক্রান্ত চলছে: শেখ হাসিনা

বাংলাদেশ ও মিয়ানমার ভেঙে খ্রিষ্টান দেশ বানানোর চক্রান্ত চলছে: শেখ হাসিনা

বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের একটি অংশ নিয়ে পূর্ব তিমুরের মতো খ্রিষ্টান দেশ বানানোর চক্রান্ত চলছে বলে অভিযোগ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেছেন, বঙ্গোপসাগরে ঘাঁটি বানানোর প্রস্তাবও দিয়েছে ‘সাদা চামড়ার’ দেশ।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে ১৪ দলীয় জোটের এক বৈঠকের সূচনা বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

বাংলাদেশে যাতে কোনোভাবেই নির্বাচন না হয়, বিএনপি সেই ষড়যন্ত্র করেছে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “তবে দেবে, আমার ক্ষমতায় আসতেও অসুবিধা হবে না, যদি আমি বাংলাদেশে কারও এয়ার বেজ করতে দিই, ঘাঁটি করতে দিই- তাহলে আমার কোনো অসুবিধা নাই। কোনো এক সাদা চামড়ারই প্রস্তাব।”

“আমি একই জবাব দিয়েছি, আমি স্পষ্ট বলেছি- ‘আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মেয়ে, আমরা যুদ্ধ করে বিজয় অর্জন করেছি, দেশের অংশ ভাড়া দিয়ে বা কারও হাতে তুলে দিয়ে আমি ক্ষমতায় যেতে চাই না, ক্ষমতার দরকার নেই। যদি জনগণ চায় ক্ষমতায় আসব, না হলে আসব না।’ এই কথাগুলো বললাম, কারণ সকলের জানা উচিত।”

বহির্বিশ্বের ষড়যন্ত্রের কথা তুলে ধরতে গিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “আমার যুদ্ধ ঘরে-বাইরে, সব জায়গায়। ওই অবস্থায় আমি চ্যালেঞ্জ দিয়ে ছেড়ে দিলাম। চক্রান্ত এখনো আছে। পূর্ব তিমুরের মত বাংলাদেশের একটি অংশ নিয়ে…তারপরে চট্টগ্রাম, মিয়ানমার এখানে একটা খ্রিষ্টান দেশ বানাবে, বঙ্গোপসাগরে একটা ঘাঁটি করবে।”

“তার কারণ বঙ্গোপসাগর ও ভারত মহাসাগরে প্রাচীনকাল থেকে ব্যবসা-বাণিজ্য চলে। এ জায়গাটার ওপর অনেকেরই নজর। সেটা আমি হতে দিচ্ছি না; এটাও আমার একটা অপরাধ।”