সরকারি দল এখন তারকা অপরাধীদের আশ্রয়কেন্দ্র: গণতন্ত্র মঞ্চ

সরকারি দল এখন তারকা অপরাধীদের আশ্রয়কেন্দ্র: গণতন্ত্র মঞ্চ

সাবেক সেনা ও পুলিশপ্রধানের দুর্নীতি এবং সরকারদলীয় এমপি আনোয়ারুল আজীমের হত্যাকাণ্ডের দায় সরকার এড়াতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা। তারা বলেছেন, সরকার ও সরকারি দল এখন এমন শত শত তারকা অপরাধীর প্রধান আশ্রয়কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে।

শনিবার বিকালে খুলনা বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা এসব কথা বলেন। খুলনা নগরীর উমেশচন্দ্র পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা বলেন, দমন করে শাসন করতে গিয়ে সরকারের ভেতর ও বাইরে অসংখ্য অপরাধী ও দুর্বৃত্তের জন্ম হয়েছে। এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে ডামি সরকারকে বিদায় দেওয়া ছাড়া আর কোনো পথ নেই।

প্রতিনিধি সভায় মঞ্চের কেন্দ্রীয় নেতারা বলেন, কর্তৃত্ববাদী শাসন দেশকে গভীর অনিশ্চয়তার মধ্যে নিপতিত করেছে। এ দেশের জনগণ কোনো শক্তির আধিপত্য ও দখলদারি বরদাশত করবে না। দেশে ভোটাধিকার, গণতন্ত্র ও সার্বভৌমত্ব নিশ্চিত করতে এই সরকারকে বিদায় করতে হবে।

পাটকল ও চিনিকল বন্ধের সমালোচনা করে মঞ্চের নেতারা বলেন, বর্তমান সরকার দেশের ২৬টি পাটকল ও ছয়টি চিনিকল বন্ধ করে দিয়েছে। আজ চিনির দাম বৃদ্ধির পুরো দায়ভার সাধারণ মানুষের ওপর গিয়ে পড়ছে। এটা উদ্দেশ্যমূলকভাবেই করা হয়েছে। ভবিষ্যতে পাট রাষ্ট্রায়ত্ত মালিকানায় উৎপাদন ও বিপণন করতে হবে।

প্রতিনিধি সভায় বক্তব্য দেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণতন্ত্র মঞ্চের বর্তমান সমন্বয়ক ও গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, ভাসানী অনুসারী পরিষদের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক  শেখ রফিকুল ইসলাম, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক হাসনাত কাইয়ুম, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দীন মাহমুদ, নাগরিক ঐক্যের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক মহিদুজ্জামান মহিদ প্রমুখ।

গণতন্ত্র মঞ্চ খুলনা জেলা ও মহানগর আহ্বায়ক খান লোকমান হাকিমের সভাপতিত্বে সভা সঞ্চালনা করেন মঞ্চের খুলনা জেলা ও মহানগরের সদস্যসচিব মুনীর চৌধুরী।