যথেষ্ট হয়েছে, ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে যা হচ্ছে তা মারাত্মক ক্ষতি ডেকে আনবে: সরকারকে সিনেটর ডিক ডারবিন

যথেষ্ট হয়েছে, ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে যা হচ্ছে তা মারাত্মক ক্ষতি ডেকে আনবে: সরকারকে সিনেটর ডিক ডারবিন

শান্তিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকারের হয়রানিকে যথেষ্ট হয়েছে বলে সতর্ক করে যুক্তরাষ্ট্র সিনেটের আইনবিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যান এবং সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের হুইপ সিনেটর ডিক ডারবিন বলেছেন, "সোজা কথা। প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে যা হচ্ছে তা প্রহসন। এটি যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশের দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ককে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্থ করবে।"

ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে সরকারের হয়রানি অবশ্যই অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে উল্লেখ করে ক্ষমতাসীন দল ডেমোক্রেটের সিনেটর ডারবিন সরকারকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, "যথেষ্ট হয়েছে।"

সোমবার যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের উচ্চ কক্ষ সিনেটে ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকারের প্রতারণামূলক মামলা দায়ের প্রসঙ্গে দেয়া এক ভাষণে এভাবেই ক্ষমতাসীন সরকার আওয়ামী লীগকে সতর্ক করেন সিনেটর ডারবিন।

বেশ কয়েকটি প্রশ্নবিদ্ধ মামলায় আসন্ন দিনগুলোতে আদালত ড. ইউনূসকে ছয় মাসের জেল অথবা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করেন সিনেটর ডিক ডারবিন।

Video: Senator Dick Durbin

ডারবিন তার ভাষণে বলেন, বাংলাদেশে এক দশকেরও বেশী সময় ধরে ১০০ এর বেশী বানােয়াট মামলার মুখোমুখি প্রফেসর ইউনূস।

গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা হিসাবে প্রফেসর ইউনূসের অবদানের কথা নিজের ভাষণে তুলে ধরে সিনেটর ডারবিন বলেন, প্রফেসর ইউনূসের প্রতিষ্ঠিত গ্রামীণ ব্যাংক বিশ্বে দারিদ্র দূরীকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।

ডারবিন বলেন, "বিশ্বে দারিদ্র দূরীকরণে অগ্রণী ভূমিকা রাখা চমৎকার একজন ব্যক্তিকে যখন কংগ্রেসনাল গোল্ড মেডেল প্রদক প্রদান করা হয় তখন আমার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সিনেটর মাইক ইনজি। আর এই পদক পেয়েছিলেন গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা বাংলাদেশি প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস।"

উন্নয়নশীল দেশে গরিব পরিবারগুলোর দারিদ্র দূরীকরণে গ্রামীণ ব্যাংকের ক্ষুদ্র ঋণের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে ডেমোক্রেট দলীয় এই সিনেটর বলেন, "৭০ লক্ষ এর অধিক মানুষ, যাদের অধিকাংশই নারী বা তাদের দ্বারা গঠিত কোন সংগঠন, তারা সহজ শর্তে গ্রামীণ ব্যাংক থেকে ক্ষুদ্র ঋণ সুবিধা পায়। এই ঋণ তাদের দারিদ্র দূরীকরণে সহায়তা করে। দারিদ্র দূরীকরণে ভূমিকা রাখার জন্য প্রফেসর ইউনূস ২০০৬ সালে শান্তিতে নােবেল পুরস্কার পান।"

প্রফেসর ইউনূসের মানবতাবাদী এইসব অসামান্য কাজের বিপরীতে বাংলাদেশ সরকার তার বিরুদ্ধে শতাধিক বানোয়াট মামলা দায়ের করেছে বলে মন্তব্য করেন সিনেটর ডারবিন। তিনি বলেন, আরেকটি মামলায় দ্রুত রায় দেয়া হবে। আর সেই রায়ে ভিত্তিহীন অভিযোগে প্রফেসর ইউনূসের যাবজ্জীবন পর্যন্ত সাজা হতে পারে।

বাংলাদেশ সরকারের এ ধরনের কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানিয়েছেন সিনেটর ডারবিন। তিনি একইসঙ্গে ড. ইউনূসের হয়রানির বিরুদ্ধে ১৭০ জন বিশ্ব নেতা যে প্রতিবাদ জানিয়েছেন তার সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করেন।

ডারবিন বলেন, "বাংলাদেশের যেভাবে প্রফেসর ইউনূসের বিরুদ্ধে সরকার যেরকম আচরণ করছে তাতে হতাশ হয়ে শতাধিক নোবেল জয়ীসহ বিশ্বের ১৭০ জন বিশ্ব নেতা গত বছর  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চিঠি লিখেন। চিঠিতে তারা ইউনূেসর বিরুদ্ধে মামলা এবং হয়রানি বন্ধ করার আহ্বান জানান।" তিনি বলেন, "একই ধরনের আহ্বান আমিও জানিয়েছে। আজ সিনেটের এই ফ্লোর থেকে একই আহ্বান জানচ্ছি।"

ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে সরকার যা করছে তা যথেষ্ট হয়েছে বলে নিজের বক্তব্য শেষ করেন ক্ষমতাসীন দল ডেমোক্রেটের এই সিনেটর।

গত ২ জুলাই সিনেটর ডারবিনের নেতৃত্বে আরও তিন সিনেটর এক যৌথ বিবৃতিতে ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে হয়রানির নিন্দা জানান। তারা ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে দুর্বব্যবহার বন্ধ এবং তার বিরুদ্ধে দায়ের করা প্রশ্নবিদ্ধ মামলাগুলো প্রত্যাহার করতে বাংলাদেশ সরকারকে আহ্বান জানান। এর আগে ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে হয়রানি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চিঠি লিখেন ডারবিনসহ ১২ সিনেটর।

ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে হয়রানির নিন্দা জানিয়েছেন শতাধিক নোবেল বিজয়ী। এদের মধ্য রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

ডিক ডারবিন যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে অধ্যাপক ইউনূসকে ২০১৩ সালে কংগ্রেসনাল গোল্ড মেডেল প্রদানের নেতৃত্ব দেন। বিশ্বব্যাপী দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তার অগ্রণী অবদানের স্বীকৃতস্বরূপ তাকে ওই মেডেল দেওয়া হয়।